News

এস এস সি পরিক্ষা হচ্ছে না পবিত্র ঈদুল আযহার আগে।

ADVERTISEMENT

এস এস সি পরিক্ষা হচ্ছে না পবিত্র ঈদুল আযহার আগেঃ পবিত্র ঈদুল আজহার আগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না এসএসসি পরীক্ষা! হঠাৎ স্থগিত এসএসসি পরীক্ষা। পবিত্র ঈদুল আজহার আগে আর অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলে আগামী সাত থেকে দশ দিন পর পূণরায় এসএসসির নতুন রুটিন প্রকাশ করা হবে। ঢাকা শিক্ষাবোর্ড থেকে এ তথ্য জানা যায়। এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার বলেন,

এস এস সি পরিক্ষা হচ্ছে না পবিত্র ঈদুল আযহার আগে।
এস এস সি পরিক্ষা হচ্ছে না পবিত্র ঈদুল আযহার আগে।

ঈদের আগে এসএসসি পরীক্ষা আয়োজনের সুযোগ যে একেবারে নেই তা বলবো না। তবে সবকিছুই নির্ভর করছে বন্যা পরিস্থিতির ওপর। আমরা আশা করছি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হবে। আর পরিস্থিতি ভাল হলেই পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করা হবে।

এস এস সি পরিক্ষা হচ্ছে না পবিত্র ঈদুল আযহার আগে।

এবার এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন শিক্ষার্থীর অংশ নেবে। সাধারণ নয়টি বোর্ডের অধীনে ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৭১১ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। এর বাইরে দাখিলে ২ লাখ ৬৮ হাজার ৪৯৫ জন আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি ও দাখিল ভোকেশনালে ১ লাখ ৬৩ হাজার ৬৬২ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় বসবে।

এদিকে এসএসসি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। এ বিষয়ে অধ্যাপক তপন কুমার সরকার বলেন, বন্যা কবলিত এলাকা ছাড়া অন্য সব এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক নিয়মে পাঠদান চালু থাকবে। যদি কোনো প্রতিষ্ঠান ক্লাস কার্যক্রম ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে তবে তা পূণরায় চালু করতে হবে।

এর আগে শুক্রবার দেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় আগামীর ১৯ জুন থেকে শুরু হওয়া সকল শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি জেনারেল, এসএসসি ভোকেশনাল এবং দাখিল পরীক্ষা স্থগিত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মন্ত্রণালয় পরীক্ষার পরিবর্তিত সময়সূচি পরে জানানো হবে বলেও জানিয়েছে।

জানা যায়, এ বছর এসএসসিতে তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে না শিক্ষার্থীদের। এসএসসিতে বিভাগভেদে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, কৃষিশিক্ষা, সংগীত, আরবি, সংস্কৃত, পালি, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া, চারু ও কারুকলা, পদার্থবিজ্ঞান, বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, রসায়ন, পৌরনীতি ও নাগরিকতা, ব্যবসায় উদ্যোগ, ভূগোল ও পরিবেশ, উচ্চতর গণিত, হিসাববিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, অর্থনীতি বিষয়ে পরীক্ষা হবে।

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি পদ্মা সেতু উদ্বোধনের কারণে ২৫ জুন এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ইংরেজী দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা আগের দিন অর্থাৎ ২৪ জুন নেয়ার ঘোষণা দেন। তিনি , এসএসসি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ১৫ জুন থেকে সারাদেশের কোচিং সেন্টার তিন সপ্তাহ বন্ধের নির্দেশ দেন।

বন্যার কারণে স্থগিত হওয়া এ বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা কবে শুরু হবে, তা এখনো নিশ্চিত নয়। তবে যদি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়, তাহলে আসন্ন ঈদুল আজহার আগেই এই পরীক্ষা শুরু হতে পারে। অন্যদিকে এসএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ার কারণে আগামী আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও পিছিয়ে যেতে পারে।

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকারের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে। তপন কুমার শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের সংগঠন আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়কের দায়িত্বে আছেন।

ঘোষিত সময়সূচি অনুযায়ী আজ থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সিলেটসহ দেশের কয়েকটি এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তা স্থগিত করে সরকার। এ কারণে ২০ লাখের বেশি পরীক্ষার্থী অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে। এ পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় এইচএসসি পরীক্ষাও পিছিয়ে যাবে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক তপন কুমার সরকার আজ সকালে প্রথম আলোকে বলেন, বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই আবারও এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি প্রকাশ করা হবে। যদি দেখা যায় আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়ে গেছে, তাহলে ঈদের আগেও শুরু করা যেতে পারে। বিষয়টি নির্ভর করছে পরিস্থিতির ওপর।

এ বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও পিছিয়ে যেতে পারে কি না, সে প্রশ্নের জবাবে তপন কুমার সরকার বলেন, পেছাতেও পারে। কারণ, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মধ্যে মোটামুটি দুই মাসের একটি বিরতির প্রয়োজন হয়। না হলে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। সে ক্ষেত্রে এইচএসসি পরীক্ষা কিছু সময় পিছিয়ে যেতে পারে।

আগামী ২২ আগস্ট এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা। ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষা ওই বছরের এপ্রিলে এবং এইচএসসি পরীক্ষা জুনে হতে পারে বলেও জানান ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান।

আড়ও পড়ুন

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড
ADVERTISEMENT

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button