HonoursNational University

অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)

ADVERTISEMENT

Table of Contents

অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022

অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান কার্যালয় গাজীপুরে অবস্থিত। গাজীপুর জেলার 11.39 একর জমির উপর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অবস্থিত। বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে পরিচিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। প্রায় 28 লাখ এর মত শিক্ষার্থী এখানে অধ্যয়ন করার সুযোগ পাচ্ছে।

1992 সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডঃ মোঃ মশিউর রহমান এবং আচার্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবসাইট রয়েছে।

ওয়েবসাইটটি হল- www.nu.ac.bd এবং www.nubd.info । প্রতিবছর লাখ লাখ শিক্ষার্থী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা দিয়ে থাকে। ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে মেধা যাচাই করা হয়। আজকের পোষ্টে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল এবং অনার্স এর ফলাফল কিভাবে বের করতে হয় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

অনার্স ১ম বর্ষের রেজাল্ট দেখার নিয়ম

প্রতিবছর লাখ লাখ শিক্ষার্থী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে থাকে।এই ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীর মেধা যাচাই করা হয়। প্রথম মেধা তালিকা ভর্তি শেষ হবার পর দ্বিতীয় মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়। এরপর প্রকাশ করা হয় তৃতীয় মেধাতালিকা।

এভাবে পর্যায়ক্রমে ভর্তি কার্যক্রম চলতে থাকে। যতক্ষণ পর্যন্ত আসন সংখ্যা খালি থাকে। ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল অনলাইন এবং অফলাইন দুই ভাবেই দেখা যায়। অনলাইনের ফলাফল দেখতে হলে প্রথমে নিচের লিঙ্কে প্রবেশ করতে হবে।

এরপর  Applicant’s Roll number অপশনে আপনার  রোল নাম্বার দিতে হবে। অতঃপর Pin Number অপশনে পিন নম্বরটি দিতে হবে। লগইন করলেই বের হয়ে যাবে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল। আর অফলাইনে ফলাফল দেখতে হলে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে NU।

মোবাইলে রেজাল্ট দেখার নিয়ম

যাদের মোবাইলে ইন্টারনেট অপশন থাকেনা তারা খুব সহজেই মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে অনার্স রেজাল্ট বের করতে পারবে। এর জন্য একটি মোবাইল অপারেটর থাকা প্রয়োজন।

প্রথমে মোবাইলের মেসেজ অপশনে যেতে হবে। এরপর টাইপ করতে হবে NU।  এরপরে স্পেস দিয়ে পরীক্ষার কোর্স নাম লিখতে হবে। যেমন- অনার্স চতুর্থ বর্ষের ফলাফলের জন্য লিখতে হবে H4।

সবশেষে স্পেস দিয়ে পরীক্ষার রোল নাম্বারটি লিখতে হবে। মেসেজটি লেখা শেষ হলে পাঠিয়ে দিতে হবে 16222 নম্বরে। আশা করি এ প্রক্রিয়ায় আপনারা খুব সহজেই অনার্স রেজাল্ট বের করতে সক্ষম হবেন।

অনার্স ৩য় বর্ষের রেজাল্ট দেখার নিয়ম

এরপর স্পেস দিয়ে টাইপ করতে হবে ATHN। 

 অতঃপর আবার স্পেস দিয়ে আপনার রোল নাম্বারটি লিখতে হবে। মেসেজটি পাঠিয়ে দিতে হবে 16222 নাম্বারে। অনলাইনে অনার্স রেজাল্ট দেখা খুব সহজ। এর জন্য শুধুমাত্র ইন্টারনেট সংযোগ থাকা প্রয়োজন। এর জন্য যা করতে হবে-

১. প্রথমে মোবাইলের ব্রাউজার এ গিয়ে   nu.ac.bd/results ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

২. অতঃপর ক্লিক করতে হবে মেনু অপশন এ। 

৩.এরপর Honours Sub-menu অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৪. অতঃপর আপনি যে বর্ষের ফলাফল বের করতে চান সে বর্ষের ওপর ক্লিক করতে হবে।

৫. সবশেষে আপনার রোল নাম্বার দিতে হবে। সাবমিট বাটনে ক্লিক করে অপেক্ষা করলে বের হয়ে যাবে অনার্স রেজাল্ট।

আপনি চাইলে প্রিন্ট অপশনে ক্লিক করে রেজাল্ট প্রিন্ট করে নিতে পারেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি 2022

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি 2022  সিজিপিএ নির্ণয় ২০২০-২০২১। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিজিপিএ নির্ণয় করার নিয়মকানুন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স, ডিগ্রী, মাস্টার্সের গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি জেনে নিন এখানে।,,,

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রেডিং সিস্টেম:

Mark RangeGrade Point (GP)Letter Grade (LG)Division
৮০-১০০৪.০০A+১ম বিভাগ
৭৫-৭৯৩.৭৫A১ম বিভাগ
৭০-৭৪৩.৫০A-১ম বিভাগ
৬৫-৬৯৩.২৫B+১ম বিভাগ
৬০-৬৪৩.০০B১ম বিভাগ
৫৫-৫৯২.৭৫B-২য় বিভাগ
৫০-৫৪২.৫০C+২য় বিভাগ
৪৫-৪৯২.২৫C২য় বিভাগ
৪০-৪৪২.০০D৩য় বিভাগ
০-৩৯০.০০Fail——–

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর cgpa গ্রেডিং পদ্ধতি জেনে রাখুন

NU CGPA নির্ণয়:

১ বছরের CGPA নির্ণয : এক বছরে মোট অর্জিত পয়েন্ট এক বছরে মোট অর্জিত ক্রেডিট।

এক বছরে মোট অর্জিত পয়েন্ট : কোন বিষয়ে প্রাপ্ত পয়েন্টকে ঐ বিষয়ের ক্রেডিট দিয়ে গুন। এভাবে সকল সাবজেক্টের পয়েন্টকে তাদের ক্রেডিট দিয়ে গুন দিয়ে সব গুনফলকে যোগ করে পাওয়া যাবে “এক বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট”।

এক বছরের মোট অর্জিত ক্রেডিট : পাশ কৃত সকল বিষয়ের ক্রেডিট যোগ করে পাওয়া যাবে “এক বছরের মোট অর্জিত ক্রেডিট”

Ex : বিষয়ভিত্তিক পয়েন্ট × তার ক্রেডিট :

A-= 3.50×4 =14 ;

B+=3.25×4=13;

A+=4.00×4 =16;

B+=3.25×4=13;

A-=3.50×4=14;

B+=3.25×4 =13;

সুতরাং মোট অর্জিত পয়েন্টস :

14+13+16+13+14+13=83

এবং মোট অর্জিত ক্রেডিট :

4+4+4+4+4+4 = 24

মোট জিপিএ দাড়ায় : 83÷24=3.45

৪ বছরের CGPA নির্নয়: চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট (প্রথম বর্ষ + ২য় বর্ষ + ৩য় বর্ষ + চতুর্থ বর্ষ) ÷ পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট সংখ্যা।

চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট : জিপিএ নির্নয়ের প্রথম ধাপের ন্যায় সকল বর্ষের “মোট অর্জিত পয়েন্টস” গুলো পর পর যোগ করলে পাবেন চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট।

পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট : পুরো কোর্সের সকল পাশকৃত বিষয়ের ক্রেডিটের যোগ ফল হলো পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট।

Ex : চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্টস : 83+85+81+79=328

পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট :

24+24+26+28=102

অতএব, মোট CGPA : 328÷102=3.21

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি ২০২০-২০২১

GPA(Grade Point Average) এবং CGPA(Cumulative Grade Point Average) দুটি শব্দের সাথে আমরা পরিচিত। এর মধ্যে জিপিএ আমরা এসএসসি ও এইচএসসি পাস করার পর হিসেব করতে পারলেও অনার্স ডিগ্রী মাস্টার্স এ এসে বুঝতে পারি না সিজিপিএ কিভাবে বের করব।

৪ বছরের কোর্সে প্রতি বছর আপনি যে মার্ক অর্জন করবেন সেটার গড়কে বলা হয় GPA আর ৪ বছরের মোট রেজাল্টের গড়কে বলা হয় CGPA.

অনার্স ডিগ্রী মাস্টার্সের প্রতি ইয়ারে সাবজেক্ট ভিত্তিক ক্রেডিট থাকে। এটা আপনার সিলেবাসে প্রতিটা সাবজেক্ট এর পাশেই লেখা দেখবেন।

কোর্স ভিত্তিক নাম্বারের ভিন্নতা থাকতে পারে। যেমন সব কোর্স ১০০ নাম্বারের হয় না। কিছু কোর্স থাকে দুটো ৫০ করে ১০০ নাম্বার। এক ইয়ারে আপনি যে বিষয়গুলা পড়বেন এদের প্রত্যেকটিকে একেকটি কোর্স বলা হয়।

তাহলে ধরি আপনি প্রথম বর্ষে মোট ৬ টি সাবজেক্ট পড়ছেন। প্রত্যেকটা ৪ ক্রেডিট করে মোট ২৪ ক্রেডিট। এবার পরীক্ষায় প্রত্যেক সাবজেক্টে আপনি পেয়েছেন ৪০ করে। তাহলে ৪০ পেলে ২ পয়েন্ট পেয়েছেন প্রতি সাবজেক্টে। তাহলে ৬টি সাবজেক্টে পেয়েছেন (৬*৮) মানে ৪৮ পয়েন্ট। উপরে লক্ষ্য করুন প্রতিটা সাবজেক্ট এর পাশে ঠিক কত নাম্বার পেলে কত পয়েন্ট হবে সেটা লেখা আছে। তাহলে ৪৮/২৪ তাহলে আপনার সিজিপিএ ২।

এবার প্রতিটা সাবজেক্টে যদি আপনি ৮০ নাম্বার করে পান আপনার পয়েন্ট প্রতিটায় হবে ১৬ করে। তাহলে ৬টি সাবজেক্ট কে গুণ করবেন ১৬ দিয়ে। মানে ১৬*৮=১২৮/২৪= ৪ মানে আপনার সিজিপিএ ৪।

আশা করি যারা গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি জানতেন না তারা অনেকটাই জানতে পেরেছেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল নোটিশ সবার আগে বিস্তারিত জানতে আমাদের ওয়েবসাইট এর সাথেই থাকুন৷ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি। অনার্স ১ম, ২য়, ৩য় ,৪র্থ বর্ষের জিপিএ হিসেব করার নিয়ম।

অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট দেখার নিয়ম-2022 (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ বর্ষের)অনার্স রেজাল্ট

ADVERTISEMENT

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button