Health Tips

পুশ আপ কি | পুশ আপ শেখার উপায় |পুশ আপ এর নিয়ম

পুশ আপ কি | পুশ আপ শেখার উপায় |পুশ আপ এর নিয়ম: পুশ আপ করলে সারা শরীরের মাংসপেশির উপর চাপ পরে। এতে মাংসপেশিতে যে টান পরে, তাতে শরীরের উপকার হয়। এছাড়াও, পুশ আপ করলে হাত, কাঁধ এবং শরীরের নীচের অংশ মজবুত হয়। শুধু তাই নয়, পুশ আপ মাংসপেশিকে স্থিতিস্থাপক বানাতে সাহায্য করে।

পুশ আপ করার সময় খেয়াল রাখবেন মাথা, গলা, কোমর, পা যেন একটি সোজা লাইন বরাবর থাকে। এরপর ধীরে ধীরে শরীরকে উপর দিকে তুলে তারপর নীচের দিকে নামিয়ে আনতে হবে। কখনই তাড়াহুড়ো করে পুশ আপ করা উচিত নয়। এতে শরীরের ক্ষতি হতে পারে।

পুশ আপ কি | পুশ আপ শেখার উপায় |পুশ আপ এর নিয়ম
পুশ আপ কি | পুশ আপ শেখার উপায় |পুশ আপ এর নিয়ম

পুশআপ

পুশআপ এমন একটি ব্যায়ামঃ যা করতে কোনও রকম জিম যেতে হয় না। এটা খুব সহজে আমরা নিজেরাই শিখে নিতে পারি।পুশআপ করলে আমাদের শরীর এর প্রতিটা অঙ্গ প্রতঙ্গের ব্যায়ামঃ সম্পন্ন হয়।
আমরা চাইলেই পুশআপ করে আমাদের উদীয়মান স্বাস্থকে ভালো ভাবে কাটিং সেভ দিতে পারি।
আমরা অনেক এই আছি যারা মাঝে মধ্যে চেষ্টা করি পুশ আপ করার,কিন্তু ১টা বা ২টার বেশি সম্ভব হয় না।

আজ আমি আপনাদের কাছে এমন কিছু টিপস শেয়ার করবো যার মাধ্যমে আপনারা খুব সহজে পুশ আপ শিখে যাবেন।
বন্ধুরা পুশ আপ এমন একটা ব্যায়ামঃ যার মাধ্যমে আপনার বুক,পেট ,কাদ ,বহু আপনার সব মার্সেল ট্রাইনেড হয়ে যায়।

অনেক এই আছে যাদের ইচ্ছা আছে কিন্তু ১/২টার বেশি পুশ আপ করতে পারেন না বা একেবারেই নতুন। আজ আমি তাদের জন্য কিছু নিয়ম বা টিপস দিবো যা প্রতিটা মানুষ ফলো করতে পারেন।৫ বছরের বাচ্চা থেকে শুরু করে বুড়ো পর্যন্ত আমার এই টিপস গুলো ফলো করতে পারেন।

See also  এক রাতে ব্রণ দূর করার ঘরোয়া উপায় । এক রাতে ব্রণ দূর করার উপায়

তাহলে চলুন জেনে নেই কি কি টিপস থাকছে আপনাদের জন্য।

নং -Wall Pushup

যদি এমন হয় আপনি একটাও পুশআপ করতে পারেন না তাহলে অবশ্যই কিছু দিন ওয়াল পুশআপ লাগান।

নিয়ম:

প্রথমে আপনি আপনার দুই হাত দেয়াল এর মধ্যে রাখুন।এখন আপনি আপনার বুকে হালকা চাপ প্রয়োগ করে আস্তে আস্তে দেয়াল এর সামনে যান আবার ধীরে ধীরে ফিরে আসুন। এই ভাবে আপনি ১৫-২০ বার করুন।এই ভাবে থেমে থেমে প্রতি দিন ৩ধাপে পুশআপ করুন।এই ভাবে ৩-৪ দিন প্রতি ধাপে ১৫-২০ বার পুশআপ অবশ্যই করবেন এতে করে আপনার পুশআপ ক্ষমতা একটু বৃদ্ধি পাবে।

নং -Incline Pushup

বন্ধুরা ৩-৪ দিন ওয়াল পুশআপ করার পর একটু নতুন চেষ্টা করুন।
আবার আপনি আপনার হাতকে উঁচু কোনও ব্রাঞ্চ বা চেয়ারের রেখে পুশআপ লাগান।

নিয়ম :

হাত কোনও চেয়ার বা ব্রাঞ্চ এর উপরে রাখুন।হাত গুলো একটু চওড়া করে রাখুন।যেন খুব সহজে আপনার বডি হাত এর মধ্যে যাতায়াত করতে পারে।এখন আপনি ধীরে ধীরে হাত এর ওপর বল প্রয়োগ করে আস্তে আস্তে পুশআপ করুন।যতটুকু সম্ভব ধীরে ধীরে পুশআপ করুন,এতে করে আপনার হাতের শক্তি বৃদ্ধি পাবে।এই ভাবে আপনি ওয়াল পুশআপ এর মতো ১৫-২০ বার করুন।এটিও প্রতি দিন ৩ বার করে করবেন এবং প্রতি বারে ১৫-২০ বার পুশআপ করবেন।তবে মনে রাখবেন ইনক্লাইন পুশআপ করার আগে নিয়ম মতো ওয়াল পুশআপ এর ৩ ধাপ সম্পন্ন করুন।মানে প্রতি দিন ওয়াল পুশআপ করার পর আপনি ইনক্লাইন পুশআপ করুন। এই ভাবে ৩-৪ দিন ইনক্লাইন পুশআপ করুন।এতে করে আপনার বুক এবং হাত এর শক্তি বেড়ে যাবে।

See also  উকুন দূর করার উপায় কি এবং উকুন দূর করার উপায় ঔষধ

নং ৩-Knee Pushup

এটি হলো আপনার হাঁটুর উপর ভর করে পুশআপ করা। Wall Pushup ,Incline Pushup এর মতো এটিও আপনি ৩ ধাপে করুন,প্রতি ধাপে ১৫-২০বার করুন।অবশ্যই Wall Pushup এবং Incline Pushup চালু রাখতে হবে সমান ভাবে।

নিয়ম:

প্রথমে আপনি আপনার হাটু গেড়ে মেঝেতে রাখুন,এর পর আপনার দুই হাত সমান দূরত্বে আপনার বুক বরাবর রাখুন।এই বার আপনি আপনার হাত ও হাঁটুর উপর ব্যালান্স করে পুশআপ দিন। প্রথমত যদিও একটু কষ্ট হবে তার পর আপনি থেমে থেমে ১৫-২০ বার সম্পন্ন করুন।এই ভাবে ৩ টি ধাপ প্রতি দিন সম্পন্ন করুন।৩-৪ দিন Knee Pushup চালু রাখুন সাথে Wall Pushup এবং Incline Pushup নিয়মিত করুন।

এই ভাবে আপনি প্রতি দিন এই ৩ টি স্টেপে পুশআপ করুন। Wall Pushup, Incline Pushup এবং Knee Pushup প্রতি দিন ৩টি করে ধাপে পুশআপ করুন।এই ভাবে আপনি একসপ্তাহ আপনার পুশআপ করতে থাকুন।তবে মনে রাখবেন প্রতি টি পুশআপ এর পজিশন পাল্টানুর সময় চেষ্টা করবেন যত কম সময় নিতে পারেন।

এক সপ্তাহ পর আপনি নরমাল পুশআপ শুরু করুন।নরমাল পুশআপ এর সময় প্রথম আপনার কাছে একটু কষ্ট সদ্য হলেও আপনি পুশআপ চালু রাখুন।দেখবেন আপনি অন্য সব সময় এর তুলনায় খুব সহজে নরমাল পুশআপ করতে পারছেন।তবে Wall Pushup, Incline Pushup এবং Knee Pushup বন্ধ করবেন না.প্রতি দিন এর মতো Wall Pushup, Incline Pushup এবং Knee Pushup চালু রাখুন আর শটে নরমাল পুশআপ করুন।চেষ্টা করবেন প্রতি দিন নরমাল পুশআপ Wall Pushup, Incline Pushup এবং Knee Pushup এর মতোই ৩টি ধাপে করার।প্রতি ধাপে ১৫-২০ বার চেষ্টা করুন। এই ভাবে ৭ দিন নরমাল পুশআপ করুন সাথে Wall Pushup, Incline Pushup এবং Knee Pushup.

See also  পুষ্টি কাকে বলে। পুষ্টির প্রয়োজনীয়তা কি ?

বন্ধুরা যেকোন আপনি খুব সহজে নরমাল পুশআপ করতে পারবেন,যেকোন আপনি প্রপার নিয়মে নরমাল পুশআপ করতে পারবেন সে দিন থেকে আপনি চাইলে Wall Pushup, Incline Pushup এবং Knee Pushup বন্ধ করে দিতে পারেন।তার পর আপনি শুধু নরমাল পুশআপ করে যান। এর পর আপনি যেকোন খুব সহজে নিয়ম মানে নরমাল পুশআপ করতে পারছেন তখন আপনি আপনার পা কে যে কোনও উঁচু স্থান চেয়ার,ব্রাঞ্চ বা সোফার উপরে রেখে হাত মেজেতে রেখে Decline Pushup লাগানো শুরু করুন।

এর পর ৩-৪ দিন পরে আপনি খুব সহজে Decline Pushup লাগাতে শিখে যাবেন। এই ভাবে আপনি আপনার পুশআপ চালিয়ে যান। আর হে Normal Pushup এবং Decline Pushup আপনার প্রতি দিনের Walkout লিস্টে যুগ করে নিতে ভুলবেন না।
সুস্থ শরীর সুন্দর মন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button